বিশ্বকাপ থেকে একই দিনে বিদায় নিলেন মেসি-রোনাল্ডো

কাজানে ফ্রান্সের কাছে ৪-৩ গোলে হেরে বিশ্বকাপের শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিয়েছে মেসির আর্জেন্টিনা। আর সোচিতে উরুগুয়ের কাছে ২-১ গোলে হেরে প্রি কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গেছে রোনাল্ডোর পর্তুগাল।

একই বিন্দুতে মিলিয়ে গেলেন মেসি-রোনাল্ডো। বিশ্ব ফুটবলের দুই মহাতারকা বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলেন একই দিনে। কাজান থেকে সোচি, ছবি দুটো একই। শুধু জার্সির রঙ আর মানুষ দু’টো আলাদা। ব্যর্থতার বেদনা আর হতাশা রঙ বোধ হয় আলাদা নয়। যে হতাশা নিয়ে তাঁরা বিদায় নিয়েছিলেন কেরিয়ারের প্রথম বিশ্বকাপ থেকে, তা আরও ঘনীভূত হল তাঁদের সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপেও। বিশ্বকাপটাই যে জেতা হলো না!

৩০ জুন, ২০১৮। কাজানে ফ্রান্সের কাছে ৪-৩ গোলে হেরে বিশ্বকাপের শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিয়েছে মেসির আর্জেন্টিনা। আর সোচিতে উরুগুয়ের কাছে ২-১ গোলে হেরে প্রি কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে গেছে রোনাল্ডোর পর্তুগাল। লিওনেল মেসি হারিয়ে গেলেন তারুণ্য আর ফরাসি সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো নিষ্প্রভ থাকলেন জমাট ডিফেন্স আর দুরন্ত টিমগেমের ভিড়ে। পাঁচটি করে ব্যালন ডি’ওর জেতা মেসি-রোনাল্ডোর মধ্যে কী অসম্ভব মিল। দুজনেরই রাশিয়ায় ছিল চতুর্থ বিশ্বকাপ। ছিল অধিনায়কের আর্মব্যান্ড। এমনকী এবার বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে দু’জনেই পেনাল্টি মিস করেছেন। শুধু কী তাই, বিশ্বকাপে নক আউট পর্বে গোল নেই দুই গোলমেশিনেরই। বিশ্বকাপে নকআউট পর্বে ৮টি ম্যাচ খেলেছেন মেসি আর রোনাল্ডো খেলেছেন ৬টি ম্যাচ। বর্তমান ফুটবলবিশ্বের দুই মহাতারকার শুধু বিশ্বকাপটাই জেতা হল না। রোনাল্ডোর তো তাও ইউরো কাপ আছে। দেশের জার্সিতে মেসির শুধুই শূন্যতা।

২০২২ বিশ্বকাপ আসতে আসতে রোনাল্ডো ৩৭ আর মেসি ৩৫। এই বয়সেও খেলা চলে। এমন অনেক উদাহরণ রয়েছে। তবে ওই বয়সে মেসি-রোনাল্ডো কতটা ছন্দে থাকবেন সেই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। মেসি-রোনাল্ডোকেই বুঝে নিতে হবে তাঁদের ভবিষ্যতের পথ। ফুটবল বিধাতার নিষ্ঠুর পরিহাসে ‘স্বপ্নের ফেরিওয়ালা’ ম্যাজিক, গোলমেশিন, ‘গোট’ শব্দগুলো ইতস্তত ঘুরে বেড়াচ্ছে আর কয়েক আলোকবর্ষ দূরে বিশ্বকাপে ব্যর্থতার বিন্দুতে মিলিয়ে যাচ্ছেন মেসি-রোনাল্ডো।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*