এক হাতে ব্যাট করে ক্রিকেটীয় রূপকথা লিখলেন বাংলাদেশের তামিম ইকবাল

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশাত্মবোধের সংজ্ঞা একেক জনের কাছে একেক রকম। কেউ যুদ্ধক্ষেত্রে দেশের জন্য প্রাণপাত করেন। কেউ আবার খেলার মাঠে বুঝিয়ে দেন, প্রয়োজনে দেশের জন্য তিনি নিজের জীবন বাজি রাখতে প্রস্তুত। দেশের প্রতি আনুগত্যের সংজ্ঞা রেখে গেলেন বাংলাদেশের তামিম ইকবাল। দলের প্রয়োজনে তামিম এক হাতে ব্যাট করলেন। এক হাতে চোট নিয়ে।

এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে তামিম ইকবাল এক অসাধারণ ক্রিকেটীয় রূপকথা লিখে গেলেন। সুরঙ্গা লকমলের বলে পুল খেলতে গিয়ে বাঁ হাতের কড়ে আঙুলে গুরুতর চোট পান তামিম। তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ডাক্তাররা জানান, তামিমের আঙুলে চিড় ধরেছে। যার জন্য তিতি আর গোটা এশিয়া কাপে খেলতে পারবেন না।

এর পর হাসপাতাল থেকে তামিম যখন ফিরে আসেন তখন বাংলাদেশ ৪৭ ওভারে নবম উইকেট হারিয়েছে। রান ২২৯। এমন অবস্থায় ফের হাতের চোট নিয়ে মাঠে নামেন তামিম। জানা গিয়েছে, ওরকম পরিস্থিতিতে তামিমকে ব্যাট করতে পাঠানোর সিদ্ধান্তটা দলেরই ছিল। তবে এই সিদ্ধান্তে অধিনায়ক মাশরাফির অনুপ্রেরণা ছিল সবচেয়ে বেশি। অষ্টম উইকেট পড়ার পর সিদ্ধান্ত হয় আরেক উইকেট পড়লে এবং মুশফিক যদি স্ট্রাইকে থাকেন, তাহলে তামিম মাঠে ফিরবেন। হিসেব ছিল, মুশফিক স্ট্রাইকে থাকলে তামিমকে চোট নিয়ে ব্যাট করার ঝুঁকি নিতে হবে না। তামিম নন-স্ট্রাইকে থাকবেন। আসল কাজটা করবেন মুশফিক।

কিন্তু ৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে নবম উইকেট পড়লে। মুশফিক তখন নন-স্ট্রাইকে। ওভারের এক বল বাকি। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তখন মাঠে নামার কথাই নয় তামিমের। আর ২২৯ রানেই গুটিয়ে যাওয়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু তখনই মাঠে নামেন তামিম। হাতে ব্যান্ডেজ থাকার দরুন তামিমের পক্ষে স্বাভাবিকভাবে গ্লাভস পরে নামা সম্ভব ছিল না। তাই তামিমের জন্য গ্লাভস বিশেষভাবে কেটে দিয়েছিলেন মাশরাফি। সেই ছেঁড়া গ্লাভস পরে মাঠে নেমে এক হাতে ব্যাটিং করে গেলেন তামিম। বাংলাদেশ তাতে ২৫০ রানের গণ্ডি পেরোল। গুরুত্বপূর্ণ সময় ব্যাট করে দলকে সহায়তা করায় ইতিমধ্যে তামিমকে নিয়ে সাড়া পড়েছে ক্রিকেটবিশ্বে।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*