মুখ্যমন্ত্রী মমতা কে মেসির উপহার !

নীল-সাদা রঙ তাঁর বেশ পছন্দের। তবে লিওনেল মেসির খেলা তিনি ঠিক কতটা পছন্দ করেন তা বলা মুশকিল। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও কী মেসি-রোনাল্ডো বিভাজনে বিভক্ত হন! কে জানে! কিন্তু আর্জেন্টিনার নীল-সাদা জার্সিতে খেলা মহাতারকা কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরাগী। হেঁয়াল মনে হতে পারে প্রথমে। কিন্তু একটা ছবি দেখার পর আপনারাই বুঝতে পারবেন, কোনও হেঁয়ালি নয়। শুনে অবাক লাগলেও যা বলা হল তা একশো শতাংশ সত্যি।

শহরে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ক’দিন আগেই এক প্রদর্শনী ম্যাচে খেলতে নেমেছিল বার্সেলোনা লেজেন্ডস একাদশ। সেই ম্যাচে মোহনবাগানকে ছয় গোলে হারিয়েছে মেসির ক্লাবে সদস্যরা। মেসির দেশ আর্জেনিন্টার জার্সির রঙের সঙ্গে মেসির পছন্দের একটা মিল রয়েছে। নীল-সাদা। কিন্তু বার্সেলোনার সঙ্গে তো দূর-দূরান্ত পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রীর কোনও যোগাযোগ নেই। তা হলে! তা কী! বার্সেলোনার মহাতারকা লিওনেল মেসি কিন্তু এবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সৌহার্দ্য বিনিময় করে ফেললেন। ক্লাবের সদস্যদের হাত দিয়ে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য একখানা উপহার পাঠালেন। জানেন সেটা কী? দিদি ১০-লেখা বার্সেলোনার জার্সি। লিওনেল মেসির জার্সি নম্বর ১০। ফুটবলপ্রেমীদের কাছে এই তথ্য জল-ভাত। সেই ১০ নম্বর জার্সিতে দিদি-র নাম খোদাই করে মেসি যেন ফুটবলের মক্কার মন জিতে নিলেন আরও একবার।

দিদি নামেই তাঁর ভুবনজোড়া খ্যাতি। এই নামেই তিনি আপামোর মানুষের কাছে পরিচিত। মেসিও তাই দিদি-তেই মুগ্ধ। জার্সিতে বারসার তারকা লিখে দিলেন- প্রিয় বন্ধু দিদির জন্য শুভেচ্ছা। বার্সেলোনা লেজেন্ডেস-এর যে দল গত সপ্তাহে কলকাতায় এসেছিল, তাদের হাত দিয়েই এই জার্সি পাঠিয়েছেন লিও মেসি। জুলিয়েনো বেলেত্তি ও জারি লিটম্যানেন সেই জার্সি নিয়ে এসেছেন কলকাতায়। ফুটবল নেক্সট ফাউন্ডেশন-এর তরফে সেই জার্সি এবার তুলে দেওয়া হবে মুখ্যমন্ত্রীর হাতে। তবে আপাতত মুখ্যমন্ত্রী উত্তরবঙ্গ সফরে। তিনি ফিরলেই তাঁর হাতে মেসির পাঠানো উপহার তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সংস্থার কর্তাদের।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*