নতুন জিনিসের ভিতরে এই সব কাগজের মোড়কে কী থাকে জানেন?

নতুন জুতো বা প্লাস্টিকের বোতলের ভিতরে অনেকেই একটা বা দুটো ছোট কাগজের মোড়ক দেখেছেন। বেশ কিছু ওষুধের শিশি বা কৌটোতেও এই রকমের মোড়ক দেখতে পাওয়া যায়। ধরে দেখলে মনে হতে পারে, এর মধ্যে হয়তো নুন জাতীয় কিছু রয়েছে। মোড়কের গায়ে লেখা থাকে, ‘শিশুদের থেকে দূরে রাখুন’ বা এই জাতীয় কোনও সতর্কবার্তা। কিন্তু জানেন, কাগজের এই ছোট ছোট মোড়কে কী থাকে বা কেন এই মোড়কগুলিকে নতুন জুতো, প্লাস্টিকের বোতল বা ওষুধের শিশির ভিতরে রাখা হয়?

একে বলা হয় সিলিকা জেল। এর কাজ হল আর্দ্রতা শুষে নিয়ে শুষ্কতা বজায় রাখা। কিন্তু এই সব সিলিকা জেল ভরা মোড়ক আমরা সাধারণত ফেলে দিয়ে থাকি। কিন্তু এই সিলিকা জেলের ছোট ছোট মোড়কগুলি আমাদের অনেক কাজে লাগতে পারে। আসুন, সিলিকা জেলের এই ছোট ছোট মোড়কগুলির অন্যান্য ব্যবহার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক…

১) ধাতব জিনিসপত্রকে মরচের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য খুবই কার্যকর এই সিলিকা জেলের প্যাকেট। যেমন, দাড়ি কামানোর সেফটি রেজার বা ব্লেড সিলিকা জেলের প্যাকেটের সঙ্গে মুড়ে রাখলে সেটি অনেকদিন চলবে। রুপো বা অন্য কোনও ধাতুর তৈরি গয়নাও এই কৌশলে রাখতে পারলে সেগুলি একদম নতুনের মতো থাকবে।

২) ওষুধপত্রকে ঠিকঠাক রাখতে সিলিকা জেলের প্যাকেট ব্যবহার করা হয়। যে পাত্রে ওষুধ রাখছেন, সেই প্লাস্টিকের শিশি বা কৌটোর ভিতরে একটি বা দু’টি সিলিকা জেলের মোড়ক রাখুন। ঘরোয়া আদ্রতায় ওষুধ নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয় থাকবে না।

৩) ড্রাই ফুট, যেমন, বাদামভাজা, ছোলাভাজা ইত্যাদির পাত্রে সিলিকা জেলের মোড়ক রাখলে বিশেষ ফল পাওয়া যাবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে, সিলিকা জেলের মোড়কগুলি যেন খাদ্যদ্রব্যের সঙ্গে লেগে না থাকে।

৪) অনেকের বাড়িতেই পুরনো ছবি, অ্যালবামে যত্ন করে রাখা সত্ত্বেও ঘরোয়া আর্দতায় নষ্ট হয়ে যায়। ঘরোয়া আর্দতার হাত থেকে পুরনো ছবিগুলিকে দীর্ঘদিন ভাল রাখতে সিলিকা জেলের দু’ একটি মোড়ক ছবির অ্যালবামের সঙ্গে রাখুন।

৫) জলেতে মোবাইল ফোন পড়ে গেলে বা বৃষ্টির জলে ভিজে গেলে চিন্তা নেই! মোবাইল খুলে, ব্যাটারি বের করে প্রশমে শুকনো করে মুছে ফেলুন। তার পর একটি পলিথিনের প্যাকেটে দু’ চারটে সিলিকা জেলের মোড়কের সঙ্গে মোবাইলটি রেখে দিন। অল্প সময়ের মধ্যেই মোবাইলের ভিতরে জমে থাকা জলকণা ও আর্দ্রতা শুষে নেবে সিলিকা জেলের মোড়কগুলি।

সুতরাং, এখন থেকে নতুন কেনা জিনিসের সঙ্গে পাওয়া সিলিকা জেলের মোড়কগুলি আর ফেলে দেবেন না। প্রয়োজনে অনলাইনে ই-কমার্স সাইট থেকেও অর্ডার দিয়ে আনিয়ে নিতে পারেন।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*