চিতাবাঘের সঙ্গে লড়াই করে প্রাণ বাঁচালেন চা-শ্রমিক, হীরালাল ওরাঁও।

চা-বাগানে চিতাবাঘের হামলার পর সেখানে খাঁচা পাতার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। মালবাজার বন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত রেঞ্জার দুলাল দে বলেন, আহত শ্রমিকের চিকিৎসা করাবে বনদপ্তর। পাশাপাশি বাগানে খাঁচাও পাতা হবে।

 ডুয়ার্সে চিতাবাঘের আক্রমনে গুরুতর আহত হলেন এক চা শ্রমিক। আহত শ্রমিকের নাম হীরালাল ওরাঁও। মাল মহকুমার লিস রিভার চা-বাগান এলাকার ঘটনা।

এলাকার বাসিন্দা মহম্মদ বাবলু বলেন, চা-বাগানের কুঠি লাইন দিয়ে হীরালাল যখন বাড়ি ফিরছিলেন সেই সময় ঝোপ ভিতর থেকে একটি চিতাবাঘ তার ঘাড়ে ঝাঁপ দেয়। এরপর চিতাবাঘ তার পিঠ, হাত এবং পায়ে কামড়ে দেয়। হীরালালের চিৎকারে আশেপাশে থেকে লোকজন ছুটে এলে পালিয়ে যায় চিতাবাঘটি। এরপর রক্তাক্ত হীরালাল ওরাঁওকে মালবাজার সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করেন বাগানের শ্রমিকরা। বর্তমানে সেখানেই চিকিত্সাধীন গুরুতর আহত ওই যুবক।

চা-বাগানে চিতাবাঘের হামলার পর সেখানে খাঁচা পাতার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। মালবাজার বন দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত রেঞ্জার দুলাল দে বলেন, আহত শ্রমিকের চিকিৎসা করাবে বনদপ্তর। পাশাপাশি বাগানে খাঁচাও পাতা হবে। তবে প্রাণীটি ধরা না-পড়া পর্যন্ত আতঙ্ক কাটছে না এলাকাবাসীর।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*