এগিয়ে চলেছে রোনাল্ডোদের জয়,

পর পর দুই ম্যাচে গোল করে রোনাল্ডোর ছায়া যেন ক্রমশ মেসিকে ছাপিয়ে আরও বড় হতে চাইছে।

মনে মনে যেন ঠিক করে ফেলেছেন যা করার আগেভাগেই করে ফেলবেন। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো তাই পর্তুগালের হয়ে বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচে গোল করলেন ম্যাচের একদম শুরুর মিনিটে। স্পেনের বিরুদ্ধে ম্যাচের চার মিনিটের মাথায়। মরক্কোর বিরুদ্ধেও বুধবার তিনি গোল করলেন সেই চার মিনিটে। আগের ম্যাচে তাঁর প্রথম গোল ছিল পেনাল্টি থেকে। এই ম্যাচে হেডে। আর এই গোলের সঙ্গে সঙ্গেই ফ্র্যাঙ্ক পুসকাসকে পিছনে ফেলে এই মুহূর্তে ইউরোপের সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক গোল স্কোরার হলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ৮৫’টি গোল করে শীর্ষে সি আর সেভেন।

বিশ্বকাপে পর্তুগালের প্রথম ম্যাচের ঠিক পরদিন মাঠে নেমেছিল আর্জেন্টিনা। মরক্কোর বিরুদ্ধে রোনাল্ডোদের ঠিক পরেরদিন নামবে মেসির আর্জেন্টিনা। ফিফার সূচিতে অজান্তেই যেন কোথাও একটা দুই মহারথীর লড়াইয়ের আভাস স্পষ্ট। পর পর দুই ম্যাচে গোল করে রোনাল্ডোর ছায়া যেন ক্রমশ মেসিকে ছাপিয়ে আরও বড় হতে চাইছে। প্রথম ম্যাচে রোনাল্ডোর হ্যাটট্রিকের জবাব মেসি দিতে পারেননি। অইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে অত্যন্ত সাদামাটা দেখিয়েছে আর্জেন্টাইন তারকাকে। কাল ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে মেসি সমালোচকদের মুখে কুলুপ পরাতে পারেন কিনা সেটাই এখন দেখার।

পর্তুগাল-স্পেন ম্যাচের মতো দৃষ্টিনন্দন ফুটবল হয়নি এদিন। বরং রোনাল্ডোর দলের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই মরক্কো কিছুটা ‘রাফ অ্যান্ড টাফ’ ফুটবল খেলই শুরু করে। পর্তুগালের একের পর এক তারা রুখে দিচ্ছিল কড়া ট্যাকেলে। আর রোনাল্ডোর জন্যও ছিল বাড়তি সতর্কতা।

(সূত্রঃজি২৪ঘণ্টা)

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*